মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা

আগামীতে দেশের গ্রামসমূহে নাগরিক সুবিধা আরও সম্প্রসারণ করা হবে। দেশের গ্রামসমূহের প্রাকৃতিক সবুজ পরিবেশ অক্ষুন্ন রেখে শহরের সাথে যোগযোগ সহজতর এবং গতিশীল করা হবে। হাটবাজার, ইউনিয়ন, উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ সংযোগ সড়কসমূহ সম্প্রসারিত করে ডাবল লেন করা হবে। শহরের সাথে গ্রামের সংযোগ সড়কসমূহ যানজটমুক্ত ও প্রশসস্ত করা হবে এতে মানুষ গ্রামে থেকে সহজেই শহরে চাকরি ও ব্যবসা-বাণিজ্য করতে পারবে। গ্রামের নদীসমূহের নাব্য অক্ষুন্ন রেখে প্রয়োজনীয় সেতু/কালভার্ট নির্মাণ করা হবে। কোনো গ্রাম সেতুর অভাবে পশ্চাঃপদ থাকবে না। বিদ্যালয়গামী কোনো শিশুকে ঝুঁকি নিয়ে সাঁকো পার হতে হবে না।  গ্রামীণ নৌপথসমূহ খনন করে সচল করা হবে। এতে কৃষিপণ্যের পরিবহন ব্যয় কমে আসবে। সড়ক পথের পাশাপাশি নৌপথও ব্যবহার করা যাবে। এ সকল নৌপথে প্রয়োজনীয় সংখ্যক ঘাটও নির্মাণ করা হবে। পলস্নী অঞ্চলের খালগুলো খনন করে সচল নদী প্রবাহের সাথে যুক্ত করা হবে।  সকল গ্রামীন হাট-বাজার পরিকল্পিত ভাবে উন্নয়ন করা হবে। ব্যসত্ম ও বর্ধনশীল বাজারগুলোতে বহুতল ভবন নির্মাণ করা হবে। হাট-বাজারগুলোতে পরিবেশ সম্মত বর্জ্য ব্যবস্থাপনা গড়ে তোলা হবে। উপকূলীয় অঞ্চলে প্রয়োজনীয় সংখ্যক সুপরিসর সাইক্লোন সেন্টার নির্মাণ করা হবে যাতে দূর্যোগকালীন মানুষের পাশাপাশি গবাদিপশু এবং অন্যান্য সম্পদেরও স্থান সংকুলান হয়।  দেশের শহরগুলো উন্নত বিশে^র আধুনিক শহরের আদলে গড়ে তোলা হবে। নাগরিকদের জন্য উম্মুক্ত পার্ক, শিশুদের খেলার মাঠ, জলাবদ্ধতা নিরসনে ড্রেনেজ, যানজট দুরীকরনে প্রশসত্ম সড়কসহ ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা, আধুনিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা গড়ে তোলা হবে। নগরগুলোর সেবা প্রদানের সক্ষমতা এবং দক্ষতা বৃদ্ধি করা হবে।

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter